প্রতিধ্বনি TV
     

প্রতিধ্বনি টেলিভিশনে দেশের সকল জেলা উপজেলা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। উদ্যোমী পরিশ্রমী সৎ নির্ভীক ও দেশপ্রেমিক সাংবাদিক, যিনি সৃজনশীল মনন ও মানসে লালিত এবং বাঙালি জাতিসত্তা ও জাতীয় চেতনায় সদাজাগ্রত এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও প্রেরণায় উজ্জীবিত, এমন প্রগতিশীল ভাব ও ভাবনায় দীক্ষিত সংবাদকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীদের সর্বনিম্ন এক বছরের অভিজ্ঞতা ও কর্মষ্ঠ হতে হবে। যে কোনো বিষয়ে নূন্যতম স্নাতক অথবা স্নাতক অধ্যয়নরত হতে হবে। ইংরেজি সাংবাদিকতা বা গণযোগাযোগে স্নাতক অথবা অধ্যয়নরত প্রার্থীরা অধিকতর গুরুত্ব পাবেন। আপনার প্রতিষ্ঠানের বিশ্বব্যাপী প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপন দিন। যোগাযোগঃ ০১৮৩৭৩৩৮০৬০ (হটলাইন)

কাটগড় মোড়ে ফুটওভার ব্রীজ চাই, মৃত্যুর পরে নিহতের নামে নয়, মৃত্যুর আগেই চাই ফুটওভার ব্রীজ।

| 01-05-2019 | 190 পরিদর্শন

নিজাম উদ্দিন –

নগরীর উত্তর পতেঙ্গা ৪০ নং ওয়ার্ডের সব থেকে
ব্যস্ততম মোড় কাটগড়। আর এ ব্যস্ততম মোড়ের এক
কিলোমিটারের মধ্যে গড়ে ওঠেছে বেশ কয়েকটি
কন্টেইনার ডিপো। শুধু কন্টেইনার ডিপোই নয়, এই
এলাকার সব থেকে বড় বাস স্ট্যান্ডটিও এ মোড়ে।
যার ফলে এ পথে প্রতিদিন চলাচল করে হাজারো
ভারি যানবাহন। আর যানবাহনে ব্যস্ত থাকা এই
মোড়টির আশপাশেই গড়ে ওঠেছে ৬টি শিক্ষা
প্রতিষ্ঠান। যেখানে প্রায় ১০ হাজারেরও বেশি
শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছে। তবে এ মোড়টিতে
নিরাপদ রাস্তা পারাপারের জন্য নেই কোনো
ফুটওভার ব্রিজ। যার ফলে এ মোড়ে প্রায় ঘটে
প্রাণঘাতির মত দুর্ঘটনা। কেননা এ মোড়ে
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তাপার হয় এই এলাকার
হাজারো বাসিন্দা ও শিক্ষার্থীরা। আর তাই
জীবন বাঁচাতে এ মোড়ে দ্রুত ফুটওভার ব্রিজ
স্থাপনের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণে এ নিয়ে
মানববন্ধনও করেছেন শিক্ষার্থীরা।
গত ১১ এপ্রিল পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে
এ মানববন্ধন করা হয় বলে জানান স্থানীয় যুবক
মো. মিজানুর রহমান মিজান। তিনি বলেন, এই
এলাকার সব থেকে ব্যস্ততম মোড় এই কাটগড়।
ব্যস্ততম বলার কারণ হচ্ছে এ মোড়ের এক
কিলোমিটারের মধ্যে ৬ থেকে ৭টি কন্টেইনার
ডিপো। আর এসব ডিপো ব্যবহারকারী
যানবাহনগুলোর একমাত্র চলাচলের পথ এটি। আর
এ পথটি যেমন ডিপো ব্যবহারকারী গাড়িগুলোর
একমাত্র চলাচলের পথ ঠিক তেমনি এই এলাকার
হাজারো শিক্ষার্থী আর বাসিন্দাদেরও
চলাচলের একমাত্র পথ। কেননা এ মোড়টির
দুপাশে রয়েছে এই এলাকার সব থেকে বড় দুটি
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এছাড়া এই এলাকার সবচেয়ে
বড় বাস স্ট্যান্ডও এ মোড়টিতে। তাই এখানকার
স্থানীয়দেরও যাতায়াতের একমাত্র পথ এটি।
তবে ব্যস্ততম এই মোড়টিতে ফুটওভার ব্রিজ না
থাকায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। আর এই দুর্ঘটনা
থেকে জীবন বাঁচাতে এ মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ
নির্মাণের জন্য মানববন্ধন করেছি আমরা।
যেখানে অংশগ্রহণ করেছে হাজারো শিক্ষার্থী
ও স্থানীয়রা।
সরেজমিনে দেখা যায়, এ মোড়ের পশ্চিম পাশে
থাকা বাস স্ট্যান্ডটির সাথেই রয়েছে পতেঙ্গা
উচ্চ বিদ্যালয়। যেখানে প্রায় ৩ হাজার
শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত । আর এর ঠিক পাশেই
রয়েছে কমিউনিটি সেন্টার। যার নিচে রয়েছে
বেশকিছু নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান। যার
ফলে প্রতিদিন হাজারো শিক্ষার্থী ও মানুষের
চলাচল করতে হয় এ পথ ধরে। তবে এ মোড়ে
ফুটওভার ব্রিজ না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে
রাস্তা পারপার করতে হয় তাদের। কেননা কাটগড়
মোড়টির এক কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে গড়ে
ওঠেছে বেশকিছু কোম্পানির গোডাউন ও ডিপো।
আর বিকল্প পথ না থাকায় এসব কোম্পানির
গাড়িগুলো যাতায়াত করে এ পথ দিয়ে। এ মোড়ে
একটি ফুটওভার ব্রিজ খুবই প্রয়োজন হয়ে
দাঁড়িয়েছে বলে জানান স্থানীয় ওয়ার্ড
কাউন্সিলর মো. জয়নাল আবেদীন। তিনি
পূর্বকোণকে বলেন, ‘এই মোড়টি এই এলাকার সব
থেকে ব্যস্ততম মোড় হলেও এখানে কোন ফুটওভার
ব্রিজ নেই। কিন্তু এ মোড়ের চারপাশ দিয়ে
চলাচল করে ভারি ভারি যানবাহন। তাই এ
মোড়টিতে একটি ফুটওভার ব্রিজ খুবই প্রয়োজন।
আমি সাধারণ সভায় সিটি মেয়রকে এ বিষয়ে
জানিয়েছি। তবে এখানে ফ্লাইওভারের কাজ
চলায় এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ
করা হয়নি। ফ্লাইওভারের কাজ শেষ হলেই দ্রুত এ
মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে বলেও
জানান তিনি’।